সিরাজগঞ্জে ২১ বছর ধরে শিক্ষার্থীদের বেতন আত্মসাত করেছেন প্রধান শিক্ষক - Bangladesh Tribune সিরাজগঞ্জে ২১ বছর ধরে শিক্ষার্থীদের বেতন আত্মসাত করেছেন প্রধান শিক্ষক - Bangladesh Tribune
Bengali Bengali English English

সিরাজগঞ্জে ২১ বছর ধরে শিক্ষার্থীদের বেতন আত্মসাত করেছেন প্রধান শিক্ষক

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ৯ জুন, ২০২১
  • ২৯ Time View

সেলিম রেজা সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

স্কুল প্রতিষ্ঠাকাল থেকে শিক্ষাখাতে সরকারের ভর্তুকি (উপবৃত্তি) প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ২১ বছর ধরে বেতন ভাতা গ্রহণ করে লাখ লাখ টাকা আত্মসাত করেছেন রায়গঞ্জের নলকা মডেল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক এসএম হায়দার আলী,
(০৯ জুন ২০২১ইং) তারিখে সিরাজগঞ্জ থেকে বহুল প্রচারিত দৈনিক যুগের কথা পত্রিকায় ‘উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে বেতন গ্রহণ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় এলাকার সচেতন মহল স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছেন এবং এলাকায় টক অব দ্যা নলকায় পরিণত হয়েছে। সেই সাথে এলাকার সচেতন মহল প্রধান শিক্ষক এসএস হায়দার আলীর দূর্নীতির তথ্য প্রকাশ করতে শুরু করেছে,
তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, ১৯৯৮ সালে রায়গঞ্জ উপজেলার নলকা ইউনিয়নে নলকা মডেল হাই স্কুল প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠার ২ বছর পর ২০০০ সাল থেকে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় ১৫০জন শিক্ষার্থী উপবৃত্তি প্রাপ্ত হয়। কিন্তু প্রধান শিক্ষক হায়দার আলী ২০০০ সাল থেকেই উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে বেতন গ্রহণ করে আত্মসাত করতে থাকেন। এমনি করে ২০০০ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত প্রতি বছরেই উপবৃত্তি প্রাপ্ত ২’শ শিক্ষার্থীর নিকট থেকে বেতন গ্রহণ করে লাখ লাখ টাকা আত্মসাত করে আসছেন,
সরেজমিনে (০৬ জুন ২০২১ইং তারিখে নলকা মডেল হাই স্কুলে দেখা যায়, ৯ম শ্রেণিতে ২০২৩ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের রেজিষ্ট্রেশন করতে আসা ১১জন উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে বেতন গ্রহণ করা হয়েছে,
৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী কারিশমা এর অভিভাবক বলেন, আমি গরীব মানুষ, আমার মেয়ে উপবৃত্তি গ্রহণ করেন। স্কুলের প্রধান শিক্ষক এসএম হায়দার আলীর নির্দেশে ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত বেতন গ্রহণ করেছেন। করোনা দূর্যোগকালেও ৯ম শ্রেণির রেজিষ্ট্রেশন করতে বেতন বাবদ ২’শ ৪০ টাকা, স্কুল বন্ধ তবুও বিদ্যুৎ বিল ৬০ টাকা ও অতিরিক্ত অর্থ ৪’শ টাকা হিসেবে মোট ১৫’শ টাকা আদায় করে রেজিষ্ট্রেশন করেছেন,
এবিষয়ে প্রধান শিক্ষক এসএম হায়দার আলী বলেন, নলকা মডেল হাই স্কুল ২০০০ সাল থেকেই উপবৃত্তি প্রাপ্ত হয়েছে। ২০০০ সালে উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল প্রায় ১৫০জন। প্রতি বছরেই উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থী ছিল প্রায় ২’শ জনের অধিক। উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বেতন গ্রহণ করেছেন। কিন্তু গ্রহণকৃত বেতনের টাকা আত্মসাতের কথা অস্বীকার করেন।
এবিষয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার শফিউল্লাহ বলেন, সরকারের ভ’তুর্কি ‘উপবৃত্তি’ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে কোন প্রকার বেতন গ্রহণ করা যাবে না। তবে সেশন চার্জ গ্রহণ করা যাবে। এবিষয়ে আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved ©bangladeshtribune.com.bd
Themes customize By Zaman
শিরোনাম:
ভোলার চরফ্যাসনে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র হবে: জ্যাকব এমপি ন‌ওগাঁর আত্রাইয়ে দেয়াল ধসে শিশুর মৃত্যু সুন্দরগঞ্জে সুইপার সম্প্রদায়ের ষোড়শীকে অপহরণ ঘোড়াঘাটে ঋষিঘাট ঐতিহ্যবাহী বারুণী মেলা এবারেও স্হগিত সাতক্ষীরা মেডিকেলে করােনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ৯ জনের মৃত্যু রায়পুরে নৌকা প্রার্থীর নির্বাচনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। ধর্মপাশা প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন পলাশ সভাপতি এনামুল সম্পাদক হাসপাতালে মা ও শিশু সুরক্ষা স্বাস্থ্যসেবা আছে কাগজে ও কর্মশালায়, বাস্তবে কিছুই নেই’ পঞ্চগড়ে ট্রাকের ধাক্কায় পথচারীর মৃত্যু। মাগুরায় মুজিববর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে গৃহপ্রদান উপলক্ষ্যে প্রেস ব্রিফিং